আপডেট ১ ঘন্টা আগে ঢাকা, ১৫ই ডিসেম্বর, ২০১৭ ইং, ১লা পৌষ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ২৬শে রবিউল-আউয়াল, ১৪৩৯ হিজরী

Breaking News
{"effect":"fade","fontstyle":"Bold","autoplay":"true","timer":4000}

প্রচ্ছদ আইন আদালত

Share Button

দ্রুতই পেলেন অস্ট্রেলিয়ার ভিসা, ক্যানসার নাকি পাঠানো হচ্ছে তিন বছরের জন্য!

| ১৮:৩১, অক্টোবর ৭, ২০১৭

লন্ডন টাইমস নিউজ । ডিপ্লোম্যাটিক করাসপন্ডেন্ট । ০৮ অক্টোবর । ২০১৭

প্রয়াত রাষ্ট্রপতি  জিয়াউর রহমান  যখন কথিত রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় তাহেরকে ফাসি সহ রব-জলিলকে কারাদন্ড দিয়েছিলেন, তখন আজকের চীফ জাস্টিসের মতো জিয়া সরকার তখনকার বিরোধীদলীয় জাদরেল নেতা, মুক্তিযুদ্ধের অকোতভয় সৈনিক আ স ম  আব্দুর রবকে চিকিৎসার জন্যে জার্মানিতে নির্বাসনে পাঠিয়েছিলো। 

কাকতালীয়ভাবে চীফ জাস্টিস সিনহাকে অস্ট্রেলিয়া পাঠানোর সাথে সেদিনের আ স ম আবদুর রবের জার্মানি পাঠানোর একটা মিল লক্ষ্য করা যাচ্ছে। রব ছিলেন তুখোড় এবং তখনকার  সময়ের জনপ্রিয় রাজনীতিবিদ। সিনহা সাহেব রাজনীতিবিদ না হয়েও, এমনকি জনপ্রিয় কোন ব্যক্তি না হয়েও চীফ জাস্টিসের মতো সাংবিধানিক পদে অধিষ্ঠিত থেকেও রাষ্ট্রীয় প্রতিপত্তির( সন্ত্রাস কিনা জানিনা) কাছে মাছের মতো অসহায়ভাবে দেশ ছেড়ে যেতে বাধ্য হচ্ছেন।

এই কী আমার বাংলাদেশ ? 

ক্ষমতাসীন এবং ১৪ দলীয় সরকার দাবী করে তারা খুব জনপ্রিয় এবং গণতান্ত্রিক সরকার। তাহলে একজন সিনহাকে কেন তিন বছরের জন্য অস্ট্রেলিয়ায় এক্সপ্রেস ভিসা নিয়ে যেতে হবে? ক্যানসারের চিকিৎসার জন্য অসংখ্য বিকল্প, এমনকি, মাত্র তিন মাস পরেই যে অবসরে যাবে, তাকে কেন এতো ভয় ? তাহলে কি রাতারাতি তিনমাসে কিছু একটা করার ক্ষমতার অধিকার রাখেন সিনহা সাহেব ? বিগত কয়েকবছরেও যে কিছু করতে(থ্রেট) পারেনি, এতো বিশাল ক্ষমতাসীন দল, এতো বিশাল বিশাল বাহিনী, আর এত সমর্থন থাকা সত্যেও একজন সিনহাকে এতো ভয় কেন ?

লন্ডন এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সূত্র  সোশ্যাল মিডিয়ায় খোলাসা করেছেন, সরকার প্রধান আক্ষেপ করেছেন, সিনহা সাহেবের সাথে যেভাবে ব্যবহার করে (স্বাক্ষর সংগ্রহে) গল্পের প্লট সৃষ্টি করা হয়েছে, সেজন্যে আগামী ৩০০ বছর পর্যন্ত আওয়ামীলীগকে সেই দায় বহন করতে হবে । বঙ্গবন্ধুর আওয়ামীলীগের মৃত্যু ঢংকা কতিপয় উগ্র ব্যক্তিদের অন্যায় আচরনের মাধ্যমে সেদিন সকালে সিনহার বাসায় মৃত্যু এবং কবর দেয়া হয়ে গেছে। এখন যে আওয়ামীলীগ দেশ শাসন করছে এবং করবে, এই আওয়ামীলীগ দাফনের পর শুধু মিলাদের মিছিল বয়ে চলবে, যা আগামীর বাংলাদেশের গণতান্ত্রিক রাজনীতির জন্য এক অশনী সঙ্কেত হয়েই রইলো।

 

জানা গেছে , ছুটিতে থাকা প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা তিন বছরের জন্য সস্ত্রীক অষ্ট্রেলিয়ার ভিসা পেয়েছেন। সংশ্লিষ্ট একটি সূত্র শনিবার রাতে  এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

এদিকে শনিবার বিকালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালের ডা. সজল কৃঞ্চ ব্যানার্জি প্রধান বিচারপতির স্বাস্থ্য পরীক্ষা করেন।

গুলশান-২ এ অবস্থিত অষ্ট্রেলিয়ার ভিসা সেন্টারে গত বৃহস্পতিবার গিয়ে ভিসার আবেদন করেন প্রধান বিচারপতি ও তার স্ত্রী সুষমা সিনহা। ওইদিন তাদের বায়োমেট্রিক প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়।

এরপরই ভিসা পান প্রধান বিচারপতি।  প্রধান বিচারপতির বড় মেয়ে সূচনা সিনহা অস্ট্রেলিয়ায় বসবাস করছেন দীর্ঘদিন যাবত। সেখানেই প্রধান বিচারপতি সস্ত্রীক অবস্থান করবেন বলে জানা গেছে।  

এদিকে শনিবার  বিকাল ৫টা ৪০ মিনিটে প্রধান বিচারপতির হেয়ার রোডস্থ বাসভবনে প্রবেশ করেন  বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্ডিওলজি বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডা. সজল কৃঞ্চ ব্যানার্জি।

প্রায় এক ঘণ্টা অবস্থান করে সন্ধ্যা ৬টা ৪০ মিনিটের দিকে তিনি বাসভবন থেকে বেরিয়ে যান।

এর আগে প্রধান বিচারপতির সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন তার বন্ধু আতিক চৌধুরী। বিকাল ৫টা ১০ মিনিটের দিকে গুলশানের ওই ব্যবসায়ী ভবনটিতে প্রবেশ করেন।

এদিকে শনিবার দুপুরে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের অতিরিক্ত রেজিস্ট্রার অরুণাভ চক্রবর্তী ও হাইকোর্ট বিভাগের ডেপুটি রেজিস্ট্রার (অর্থ) ফারজানা ইয়াসমিনও প্রধান বিচারপতির সঙ্গে সাক্ষাত করেন।

অসুস্থতাজনিত কারণে ছুটিতে থাকা সুরেন্দ্র কুমার সিনহা বর্তমানে তার সরকারি বাসভবনে রয়েছেন।

Comments are closed.







পাঠক

Flag Counter



Developed By : ICT SYLHET

Developer : Ashraful Islam

Developer Email : programmerashraful@gmail.com

Developer Phone : +8801737963893

Developer Skype : ashraful.islam625

error: Content is protected !!