আপডেট ৯ ঘন্টা আগে ঢাকা, ১৬ই আগস্ট, ২০১৮ ইং, ১লা ভাদ্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা জিলহজ্জ, ১৪৩৯ হিজরী

Breaking News
{"effect":"fade","fontstyle":"normal","autoplay":"true","timer":4000}

প্রচ্ছদ জাতীয়

Share Button

রাত ১টায় হাসপাতালের কেবিন থেকে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ করে চিকিৎসক

| ১৬:৩৫, জুলাই ১৬, ২০১৮

সিলেট অফিস । ১৬ জুলাই । ২০১৮।

 

 

সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নানিকে চিকিৎসা করাতে এসে এক কিশোরী ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ধর্ষিত ওই কিশোরী নবম শ্রেণির ছাত্রী।

ওই কিশোরীকে হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ভর্তি করা হয়েছে।

রোববার গভীর রাতে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের তৃতীয়তলায় নাক, কান ও গলা বিভাগের ইন্টার্ন চিকিৎসক মাক্কাম আহমদ মাহীর রুমে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় অভিযুক্ত ওই চিকিৎসককে আটক করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন কোতোয়ালি থানার ওসি মোশাররফ হোসেন।

ধর্ষণের প্রসঙ্গে স্কুলছাত্রীর বাবা বলেন, আমার স্কুল পড়ুয়া মেয়েকে তার নানির চিকিৎসার ব্যবস্থাপত্রের ফাইল দেখার কথা বলে রাত ১টার দিকে নিজের রুমে ডেকে নেয় ইন্টার্ন চিকিৎসক মাক্কাম আহমদ মাহী (৩০)। এ সময় সে আমার মেয়েকে তার রুমে জোর করে আটকে রেখে ধর্ষণ করে।

তিনি বলেন, আমার মেয়ে চিৎকার করলেও কেউ তাকে রক্ষা করার জন্য এগিয়ে আসেনি। এমনকি আমার মেয়ে যখন কান্নাকাটি করছিল তখন ওই চিকিৎসক এ বিষয়টি কাউকে না বলার জন্য হুমকি-ধমকি দেয়। এরপর থেকেই মেয়েটি ভয়ে জড়োসড়ো হয়ে পড়ে। তার চেহারায় আতঙ্কের ছাপ দেখে কারণ জানতে চাইলে সে আমাদের ঘটনা খুলে বলে।

কিশোরীর বাবা বলেন, প্রায় এক সপ্তাহ আগে আমি আমার বৃদ্ধা শাশুড়িকে হাসপাতালের নাক, কান ও গলা বিভাগের তৃতীয় তলার ৮নং ওয়ার্ডের ১৭নং বেডে ভর্তি করি। এরপর শনিবার রাতে তার শরীরে অস্ত্রপচার করেন চিকিৎসকরা। শাশুড়িকে দেখভাল করার জন্য আর কেউ না থাকায় আমার মেয়েকে সেখানে পাঠাই। এরপর রোববার রাত ১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

তিনি আরও জানান, ‘ওই দিন ৮নং ওয়ার্ড ও ৭নং ওয়ার্ডের দায়িত্বে ছিলো নাক, কান ও গলা বিভাগের ইন্টার্ন চিকিৎসক মাক্কাম আহমদ মাহী। ৮নং ওয়ার্ডে রাত সাড়ে ১২টার দিকে পরিদর্শন করার সময় সে আমার মেয়েকে তার নানির চিকিৎসার ব্যবস্থাপত্র নিয়ে ৭নং ওয়ার্ডে তার কক্ষে যাওয়ার কথা বলে।’

এ ঘটনায় কোতোয়ালি থানায় ওই চিকিৎসকের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছেন জানিয়ে মেয়েটির বাবা বলেন, ‘আমি ওই চিকিৎসকের বিচার চাই। আমার মেয়ের যে ক্ষতি হয়েছে তা আর পূরণ হওয়ার নয়। কী হবে আমার মেয়ের?’

এর আগে, হাসপাতাল পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এসআই ফারুক আহমদ জানান, গতকাল রোববার রাতে নগরীর বনকলাপাড়া থেকে ওই কিশোরী তার নানিকে হাসপাতালে নিয়ে আসেন। ওষুধ লিখে আনতে ওই চিকিৎসকের রুমে যায় মেয়েটি। এ সময় দরজা আটকে তাকে ধর্ষণ করেন ওই ডাক্তার।

এ ব্যাপারে ওসি মোশাররফ হোসেন বলেন, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ওই চিকিৎসককে আমাদের হাতে তুলে দিয়েছে। এ অভিযোগের ভিত্তিতে তার বিরুদ্ধে এখন ব্যবস্থা নেয়া হবে।

উল্লেখ্য, অভিযুক্ত ওই চিকিৎসকের গ্রামের বাড়ি ময়মনসিংহের মুক্তাগাছায়। তার বাবার নাম মোখলেসুর রহমান। তিনি ওসমানী মেডিকেলের জিয়া হোস্টেলের ২১৪ নং কক্ষে বসবাস করেন। মাত্র ১৮ দিন আগে ওই চিকিৎসক নাক, কান ও গলা বিভাগে নিয়োগ পান বলে জানা যায়।

Comments are closed.







পাঠক

Flag Counter



Developed By : ICT SYLHET

Developer : Ashraful Islam

Developer Email : programmerashraful@gmail.com

Developer Phone : +8801737963893

Developer Skype : ashraful.islam625

error: Content is protected !!