আপডেট ২ ঘন্টা আগে ঢাকা, ১২ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং, ২৮শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা রবিউস-সানি, ১৪৪০ হিজরী

Breaking News
{"effect":"fade","fontstyle":"normal","autoplay":"true","timer":4000}

প্রচ্ছদ জাতীয়

Share Button

বৃহত্তর ঐক্যঃমার্কিনীদের ৫ ফর্মূলা এখন টেবিলে

| ২৩:২২, আগস্ট ৯, ২০১৮

ঢাকা । কূটনৈতিক রিপোর্টার । ১০ আগস্ট । ২০১৮ ।

 

 

মার্কিন দূতাবাস ও পশ্চিমা শক্তিসমূহ এবং ব্রিটেন, ফ্রান্স, জার্মানি, কানাডা, অস্ট্রেলিয়া, ইউএনডিপি সহ সকল ষ্টেক হোল্ডারদের সাথে বিএনপি, সুশীল সমাজ, উদারপন্থীদলসমূহ, নাগরিক ঐক্য, জেএসডি(রব),কামাল হোসেন, বি চৌধুরী, ডাঃ জাফরুল্লাহ চৌধুরী, ডঃ বদিউল আলম মজুমদার সময়ে সময়ে যে সব আলোচনা করেছেন, তারই প্রেক্ষিতে মার্কিন দূতাবাস ও পশ্চিমাদের পক্ষ থেকে বিএনপিকে গতকাল জানিয়ে দিয়েছে, ৫টি ফর্মূলা, যার ভিত্তিতে বৃহত্তর ঐক্য গড়ে অংশ গ্রহণমূলক  নির্বাচন এবং নির্বাচন পরবর্তী জবাবদিহিমূলক সরকার গঠণের সুপারিশ করেছেঃ

০১) ডঃ কামাল হোসেনকে নেতৃত্বে রেখে বৃহত্তর জোট গঠণ করে অংশ গ্রহণমূলক নির্বাচন-যে জোটে বিএনপি শরিক হয়ে

০২) ২০ দলীয় জোটের কার্যক্রম স্থগিত এবং জামায়াতকে বাইরে রেখে নতুন এই বৃহত্তর জোট গঠণ

০৩) সুশাসন, জবাবদিহি ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে জোটভুক্ত দলসমূহের অভিন্ন নির্বাচনী ইশতেহার- যে প্রক্রিয়া জোটের শরিকদের জন্য ১৫০ আসন বিএনিপকে  ছাড় দিতে হবে

০৪) বেগম জিয়ার মুক্তির বিষয় রাজনৈতিক এবং আদালতের মাধ্যমে ফায়সালা-নির্বাচনে ইস্যু না আনা

০৫) বিএনপি নেতা তারেক রহমানকে আপাততঃ রাজনীতির ও জোটের মূল রাজনীতির বাইরে রাখা

গতকাল বুধবার মার্কিন দূতাবাসের দুজন উর্ধ্বতন কর্মকর্তার সঙ্গে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আবদুল মঈন খানের দীর্ঘ বৈঠক হয়। এই বৈঠকে, আগামী নির্বাচনে সরকারের বিরুদ্ধে একটি সর্বদলীয় প্লাটফরম গঠনের জন্য তাগিদ দেওয়া হয়।

মার্কিন দূতাবাস এই প্রস্তাবমালা তৈরি করেছে।

সূত্র মতে, সব দল জাতীয় নির্বাচনে অংশগ্রহণ করলে, নির্বাচলে কারচুপি এবং ভোট কেন্দ্র দখলের মতো ঘটনাগুলো বন্ধ হবে। মার্কিন দূতাবাস মনে করে, সব দল অংশগ্রহণের সিদ্ধান্ত নিলে নির্বাচন কমিশনও তাদের খোলস ছেড়ে বেরিয়ে আসবে। আর নির্বাচন সংক্রান্ত বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে সরকারের সঙ্গে আলোচনার জন্য সবার আগে বিরোধী পক্ষের ঐক্য প্রয়োজন। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র মনে করে, অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন সকল রাজনৈতিক দলের দাবি হলেও, ঐ দাবিতে বৃহত্তর ঐক্যের বড় বাধা জামাত। মার্কিন  দূতাবাস মনে করে, বিএনপির সঙ্গে জামাত থাকার কারণে উদার নৈতিক গণতান্ত্রিক দলগুলো এই দলটির সঙ্গে ঐক্য গড়তে অস্বস্তি বোধ করে।

 

সূত্র মতে, ড. কামাল হোসেন, অধ্যাপক বদরুদ্দোজা চৌধুরীসহ বেশ ক’জন ‘জনপ্রিয়’ নেতা মার্কিন দূতাবাসের প্রতিনিধিদের বলেছেন, বিএনপি জামাত থেকে বেরিয়ে এলেই কেবল বিএনপির সঙ্গে জোট গঠনে তাঁরা রাজি।

 

তবে, বেশ ক’জন সুশীল সমাজের প্রতিনিধি মার্কিন দূতাবাসকে এরকম জোটের নেতৃত্ব বিএনপির হাতে থাকা উচিত নয় বলে মত দিয়েছে। বিএনপির নেতৃত্বে জোট হলে, সুশাসন এবং গণতান্ত্রিক বিধি ব্যবস্থার কোনো উন্নতি হবে না বলেও মত দিয়েছেন সুশীলরা। সুশীলরা কিছুদিনের জন্য হলেও, আওয়ামী লীগ বিএনপির বাইরে কারও সরকার পরিচালনার নেতৃত্বে থাকা উচিত বলেও মনে করেন।

 

মার্কিন দূতাবাস অবশ্য মনে করে, অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের অন্যতম শর্ত হলো নির্বাচনের ব্যাপারে বিএনপির ইতিবাচক সিদ্ধান্ত।

 

Comments are closed.







পাঠক

Flag Counter



Developed By : ICT SYLHET

Developer : Ashraful Islam

Developer Email : programmerashraful@gmail.com

Developer Phone : +8801737963893

Developer Skype : ashraful.islam625

error: Content is protected !!