আপডেট ১৪ ঘন্টা আগে ঢাকা, ২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং, ১১ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ১৫ই মুহাররম, ১৪৪০ হিজরী

Breaking News
{"effect":"fade","fontstyle":"normal","autoplay":"true","timer":4000}

প্রচ্ছদ জাতীয়

Share Button

আহমেদিয়ার আতিফ মিয়াঁকে বাদ দেওয়ায় ইমরানের সমালোচনায় জেমিমা সরব

| ০৮:২০, সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৮

১০ সেপ্টেম্বর ২০১৮

 

 

সাবেক স্ত্রীর সমালোচনার মুখে পড়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। জেমিমা গোল্ডস্মিথ তাঁর সাবেক স্বামীর নেতৃত্বাধীন সরকারের কঠোর সমালোচনা করেছেন। বিখ্যাত অর্থনীতিবিদ আতিফ মিয়াঁকে নবগঠিত অর্থনৈতিক প্যানেল থেকে বাদ দেওয়ায় সাবেক স্বামীর সরকারের সমালোচনা করেন তিনি। সংখ্যালঘু আহমেদিয়া সম্প্রদায়ভুক্ত হওয়ায় এ অর্থনীতিবিদকে প্যানেল থেকে বাদ দেওয়া হয়। খবর এনডিটিভির।

৪৪ বছর বয়সী জেমিমা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বেশ সক্রিয়। ডানপন্থীদের চাপে আহমেদিয়া সম্প্রদায়ভুক্ত আতিফ মিয়াঁকে প্যানেল থেকে বাদ দেওয়ায় টুইটারে সাবেক স্বামীর প্রতি হতাশা ব্যক্ত করেন তিনি।

পাকিস্তানের সংবিধানে আহমেদিয়াদের মুসলিম বলে স্বীকার করা হয় না। বেশির ভাগ মূলধারার ইসলাম চর্চাকেন্দ্রে তাদের ধর্মহীন বলে অভিহিত করা হয়। উগ্রপন্থীরা প্রায়ই আহমেদিয়া সম্প্রদায়ের লোকেদের আক্রমণ করে এবং তাদের মসজিদগুলো ভেঙে দেয়।

গত শুক্রবার জেমিমা গোল্ডস্মিথ টুইটারে লেখেন, ‘অসমর্থযোগ্য এবং খুব হতাশাজনক। আহমেদিয়া সম্প্রদায়ভুক্ত হওয়ায় পাকিস্তানের নতুন সরকার স্বনামধন্য ও সম্মানিত অর্থনীতির অধ্যাপককে সরে দাঁড়াতে বলেছে। পুনশ্চ, পাকিস্তানের প্রতিষ্ঠাতা কায়েদে আজম মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ তাঁর মন্ত্রিসভায় একজন আহমেদিয়াকে স্থান দিয়েছিলেন।’

জেমিমা গোল্ডস্মিথ ব্রিটেনের অন্যতম শীর্ষ কলামিস্ট। পরে তিনি এ-সংক্রান্ত দ্বিতীয় টুইট করেন, যেখানে মোহাম্মদ আলী জিন্নাহর উক্তি তুলে ধরা হয়: ‘আপনি স্বাধীন। উপাসনালয়ে যাওয়ার অধিকার আপনার আছে। পাকিস্তান রাষ্ট্রের মধ্যে মসজিদ ও অন্যান্য উপাসনালয়ে যাওয়ার অধিকার সবার আছে। আপনি যেকোনো ধর্মের, গোত্রের হতে পারেন। এ নিয়ে রাষ্ট্রের কোনো মাথাব্যথা নেই।’

জেমিমার ঘরে ইমরানের দুটি ছেলে আছে। পাকিস্তানের সাধারণ নির্বাচনে জয়লাভের পর প্রথম যাঁরা ইমরানকে অভিনন্দন জানান, জেমিমা তাঁদের অন্যতম। তখন তিনি টুইটারে লিখেছিলেন, ‘অপমান, বাধা ও ত্যাগের ২২ বছর পর আমার ছেলেদের বাবা পাকিস্তানের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হতে যাচ্ছেন। বিশ্বাস, দৃঢ়তা ও পরাজয়ের কাছে নত না হওয়ার শিক্ষা এ বিজয়। তিনি কেন রাজনীতিতে এসেছেন, সেটাই তাঁকে সর্বপ্রথম মনে রাখতে হবে। অভিনন্দন।’

ব্রিটেনের কনজারভেটিভ পার্টির এমপি জ্যাক গোল্ডস্মিথের এই বোন স্পষ্টভাষিতার জন্য পরিচিত।

উগ্র ডানপন্থীদের চাপে আহমেদিয়া সম্প্রদায়ের শীর্ষ অর্থনীতিবিদকে অপসারণের দায়ে সাবেক স্বামী ইমরান খানের সরকারের সমালোচনা করেন জেমিমা গোল্ডস্মিথ।

এ ঘটনায় ইকোনমিক অ্যাডভাইজরি কাউন্সিলের কয়েকজন সদস্যও পদত্যাগ করেন। এঁদের মধ্যে একজন পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত লন্ডনভিত্তিক অর্থনীতিবিদ ড. ইমরান রসুল। যে পন্থায় আতিফ মিয়াঁকে অপসারণ করা হয়েছে, তার সঙ্গে তিনি ‘স্পষ্টভাবে দ্বিমত’ পোষণ করেন।

ইমরান রসুল বলেন, ‘ধর্মীয় পরিচয়ের ভিত্তিতে কাউকে অপসারণ করার সিদ্ধান্ত আমার নৈতিকতা অথবা যে মূল্যবোধ আমি আমার সন্তানদের শিক্ষা দিই, তার পরিপন্থী।’

এর আগে হার্ভার্ড কেনেডি স্কুলের ফিন্যান্স অ্যান্ড ডেভেলপমেন্টের প্রফেসর ড. আসিম ইজাজ খাজা ইমরানের সরকারের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে ইকোনমিক কাউন্সিল থেকে পদত্যাগের ঘোষণা দেন।

গত বৃহস্পতিবার পুনর্গঠিত ১৮ সদস্যের কাউন্সিলের প্রথম সভার নেতৃত্ব দেন ইমরান খান।

ইমরান রসুলের পদত্যাগের মাধ্যমে পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত তিন আন্তর্জাতিক অর্থনীতিবিদের কেউই আর ইকোনমিক কাউন্সিলে রইলেন না।

Comments are closed.







পাঠক

Flag Counter



Developed By : ICT SYLHET

Developer : Ashraful Islam

Developer Email : programmerashraful@gmail.com

Developer Phone : +8801737963893

Developer Skype : ashraful.islam625

error: Content is protected !!