জেনারেল(অবঃ) ওসমানির জন্ম শতবার্ষিকী উদযাপিত

প্রকাশিত: ১২:০৪ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৭, ২০১৮ | আপডেট: ১২:০৪:অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৭, ২০১৮

সৈয়দ আবদুল কাদির । সিনিয়র কন্ট্রিবিউটিং এডিটর । লন্ডন অফিস

 

 

বিপুল উৎসাহ ও উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে নীতিতে অটল সাহসে বিরল, নিয়মানুবর্তিতার জন্য আদর্শের এক মাইলস্টোন, মুক্তিযুদ্ধের সর্বাধিনায়ক বঙ্গবীর জেনারেল আতাউল গণি ওসমানীর জন্ম শতবার্ষিকী উদযাপিত হয়েছে গত ৩০ সেপ্টেম্বর পুর্ব লন্ডনের ভ‍্যালেনস রোডস্থ ওসমানী সেন্টারে। জন্ম শতবার্ষিকী উদযাপন পরিষদ ইউকের আহ্বায়ক বিশিষ্ট কমিউনিটি এক্টিভিস্ট আলহাজ্ব কবির উদ্দিনের সভাপতিত্বে, উদযাপন কমিটির কো- কনভেনার  বিশিষ্ট কমিউনিটি নেতা সাংবাদিক কে এম আবুতাহের চৌধুরী এবং উদযাপন কমিটির সদস্য সচিব কমিউনিটি এক্টিভিস্ট আলহাজ্ব গোলাম রব্বানীর যৌথ পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন মাওলানা হাফেজ আব্দুল আহাদ। উক্ত সভায় বেশ কয়েকজন মুক্তিযোদ্ধা, ডঃ, ব‍্যারিসটার, প্রফেসর, শিক্ষক, সাংবাদিক, ডাক্তার, ইন্জিনিয়ার, সলিসিটর, ক‍্যাপটেন, সাংসদ,  বিজনেসম্যান সহ সর্বস্তরের মানুষের উপস্থিতিতে লন্ডনের ওসমানী সেন্টার এক মিলনমেলায় পরিণত হয়েছিল।
জেনারেল ওসমানীর জন্ম শতবার্ষিকী উপলক্ষে ” হৃদয়ে সর্বাধিনায়ক” স্মরণিকার মোড়ক উন্মোচন করেন প্রধান অতিথি, বিশেষ অতিথি এবং জন্ম শতবার্ষিকী উদযাপন কমিটির সদস্যবৃন্দ। ওসমানী সেন্টারের এক পার্শ্বে আলোকচিত্র প্রদর্শনীতে শুভা পাচ্ছিল় সর্বাধিনায়ক জেনারেল আতাউল গণি ওসমানীর কর্মময় জীবনের বিভিন্ন চিত্র। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন মুক্তিযোদ্ধা ও সাবেক সাংসদ মকসুদ ইবনে আজিজ লামা, বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জিএসসির পেট্রন বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ডঃ হাসনাত এম হোসেইন এমবিই, প্রবাসে মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক প্রবীন কমিউনিটি নেতা ডঃ আলী ইসমাইল, বঙ্গবীর ওসমানী ট্রাস্টের চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা আবুল কাশেম খান, উদযাপন কমিটির উপদেষ্টা শাহ্ আবিদ আলী, উদযাপন কমিটির উপদেষ্টা একাউন্টেনট ডঃ নুরুল আলম, নিউহ্যাম কাউন্সিলের ডেপুটি স্পিকার ব্যারিস্টার নাজির আহমদ, টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলের সাবেক নির্বাহী ডেপুটি মেয়র আ ম ওহিদ আহমদ, গ্রেটার সিলেট কাউন্সিল ইউকের চেয়ারপার্সন ব‍্যারিসটার আতাউর রহমান, বৃটিশ- বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্সের ডাইরেক্টর জেনারেল সাইদুর রহমান রেনু জেপি, ইজলিংটন কাউন্সিলের সাবেক মেয়র কাউন্সিলর গোলাম জিলানী চৌধুরী, উদযাপন কমিটির কো কনভেনার শেখ মোঃ মফিজুর রহমান, মুক্তিযোদ্ধা এম এ মান্নান, মুক্তিযোদ্ধা সৈয়দ আব্দুল কাইয়ূম কয়ছর, মুক্তিযোদ্ধা সৈয়দ আব্দুল মাবুদ, মুক্তিযোদ্ধা মনজজির আলী, মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হামিদ, সাপ্তাহিক সুরমার সম্পাদক কবি ফরিদ আহমদ রেজা, উদযাপন কমিটির উপদেষ্টা তোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী, উদযাপন কমিটির উপদেষ্টা ইজলিংটন বাংলাদেশী এসোসিয়েশনের চেয়ার বিশিষ্ট কমিউনিটি এক্টিভিস্ট ইফতেখার হোসেন চৌধুরী, জিএসসি সাউথ ইস্ট রিজিওনের চেয়ারপার্সন বিশিষ্ট কমিউনিটি এক্টিভিস্ট  মোঃ ইছবাহ উদ্দিন,  বিশিষ্ট চিকিৎসক ডা: আলাউদ্দিন, উদযাপন কমিটির যুগ্ম সচিব সাংবাদিক খান জামাল নুরুল ইসলাম, অর্থ সচিব ব‍্যাংকার  সৈয়দ সুহেল আহমদ, প্রচার সচিব সাংবাদিক মোঃ রহমত আলী, উদযাপন কমিটির যুগ্ম প্রচার সচিব সাংবাদিক ও শিক্ষক সৈয়দ আব্দুল কাদির,  শিক্ষক ও বিশিষ্ট কমিউনিটি এক্টিভিস্ট মোঃ মুজিবুর রহমান, উদযাপন কমিটির উপদেষ্টা ব‍্যারিসটার মাসুদ চৌধুরী,  ব‍্যারিসটার মাহমুদুল হক, ক‍্যাপটেইন অব: মঈনউদ্দিন আহমদ, নেছার আলী শমসু, কমিউনিটি এক্টিভিস্ট মশিউর রহমান মশনু, মাসুদ আহমদ, ডাঃ মাহমুদুর রহমান মান্না, বিশিষ্ট কমিউনিটি এক্টিভিস্ট নুরুল ইসলাম এমবিই, আইনজীবী শামীম চৌধুরী, উদযাপন পরিষদের সদস্য জিএসসি সাউথ ইস্ট রিজিওনের ট্রেজারার সুফি সুহেল আহমদ, কমিউনিটি এক্টিভিস্ট মিসেস ঝর্না চৌধুরী প্রমুখ।
কবিতা আবৃত্তি করেন কবি মুফিদুল গনি মাহতাব, কবি নজরুল ইসলাম, কবি শেখ শামসুল ইসলাম, সাংবাদিক মোঃ রহমত আলী প্রমুখ।
দোয়া পরিচালনা করেন বায়তুল আমান মসজিদের ইমাম ও খতিব মাওলানা আব্দুল মালিক।
বক্তারগণ জেনারেল ওসমানীর কর্মময় জীবনী ও রণাঙ্গনের বিভিন্ন স্মৃতিচারণ করে বলেন এই ক্ষণজন্মা সিংহ পুরুষের সঠিক ইতিহাস বাংলাদেশের শিক্ষা কারিকুলামের পাঠ‍্যপূসতকে অন্তর্ভুক্ত করে পরবর্তী প্রজন্মকে জানাতে হবে। সর্বাধিনায়কের জন্ম ও মৃত্যু দিবস রাষ্ট্রীয়ভাবে পালন করতে হবে। ওসমানীর নিজ হাতে লেখা মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস সম্বলিত বিরাট পান্ডুলিপি খোঁজে বের করে তা প্রকাশ করতে হবে।
এ দেশের যুব সমাজকে ওসমানীর সঠিক ইতিহাস জানানোর লক্ষ্যে ইংরেজী ভাষায় তা প্রকাশের জন্য উক্ত সভায় সিদ্ধান্ত গৃহীত  হয়েছে। জেনারেল ওসমানীর জন্ম ও মৃত্যু দিবস প্রতি বছর পালনের জন্য উক্ত সভায়   সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে।