বিশ্ব শ্রমিক দিবস নিয়ে আমার ভাবনা

প্রকাশিত: ১১:৩৭ অপরাহ্ণ, মে ১, ২০১৯ | আপডেট: ১১:৩৭:অপরাহ্ণ, মে ১, ২০১৯

আঁখি সীমা কাওসারঃ

 

পহেলা মে , বিশ্ব শ্রমিক দিবস অর্থাৎ শ্রমিকরা তো সকাল আটটা থেকে রাত বারোটা পর্যন্ত বিরতিহীন পরিশ্রম করে । খুব কম শ্রমিক অন্তত ঈদের দিন ছুটি পায় অর্থাৎ এই একটি দিন অন্তত তারা কাজ ছাড়া, পরিশ্রম ছাড়া থাকবে । কিন্তু আসলে কি তাই ? বাস্তবে শ্রমিকরা কি এই দিনে কাজ ছাড়া পরিশ্রম ছাড়া থাকে ? এই প্রশ্ন বিশ্বের বিত্তশালীদের কাছে রাখলাম ।

বিশ্ব শ্রমিক দিবস” ১মে ১৮৮৬ সালের আজকের এই দিনে বুকের তাজা রক্ত দিয়ে শ্রমিকদের অধিকার আদায়ে আত্মত্যাগ করেন, তৎকালীন সময়ে বঞ্চনার শিকার শ্রমিকেরা। সে দিন যুক্তরাষ্ট্রের ‘হে’ মার্কেটের সামনে আট ঘন্টা কাজের দাবিতে আন্দোলনে নামেন শ্রমিকেরা। আন্দোলনে পুলিশের গুলিতে নিহত ও আহত হন অনেক শ্রমিক । সেই থেকে আজ অবধি এই ১ মে আন্তর্জাতিক শ্রম দিবস বা বিশ্ব শ্রমিক দিবস হিসেবে পালন করে আসছে বিশ্ববাসী।

 

উল্লেখ থাকে যে ,আঠারো শতকের শেষের দিকে আমেরিকা ও ইউরোপে শ্রমিকদের দিয়ে ১৪ থেকে ১৮ ঘন্টা কাজ করানো হতো। ওভার টাইম বলে কোন শব্দ ছিলনা তখন। মালিক শ্রেনীর এক চেটিয়া শোষণ ও নির্যাতনের প্রতিবাদে আমেরিকার শিকাগুতে আন্দোলনের ডাক দেয় শ্রমিকরা । ঐ দিন পুলিশের গুলিতে বহু শ্রমিকের নির্মম মৃত্যুর পর শ্রমিক আন্দোলনের এ গৌরবময় অধ্যায়কে স্মরণীয় করে রাখার জন্য ১৮৯০ সাল থেকে পালিত হয়ে আসছে মহান মে দিবস বা বিশ্ব শ্রমিক দিবস । এই আন্দোলনের পরিপ্রেক্ষিতে একই সাথে বিশ্বে বাস্তবায়ন হয়েছে মেহনতী শ্রমিকদের জন্য “আট ঘন্টা, কর্ম ঘন্টা”। দেশে-ও প্রবাসে অবস্থানরত সকল শ্রমজীবী ভাইবোন বন্ধু স্বজনকে জানাই মহান মে দিবস ,বিশ্ব শ্রমিক দিবসের অনেক শুভেচ্ছা.। শ্রমিকদের সকল স্বপ্ন পূরণের প্রত্যাশায়।

 

(একজন কলম শ্রমিক এবং একজন ব্যবসায়ী শ্রমিক)