আপডেট ৩৫ min আগে ঢাকা, ১৬ই অক্টোবর, ২০১৯ ইং, ১লা কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৬ই সফর, ১৪৪১ হিজরী

Breaking News
{"effect":"fade","fontstyle":"normal","autoplay":"true","timer":4000}

প্রচ্ছদ অগ্রযাত্রা

Share Button

শেখ হাসিনাকে নোবেল শান্তি পুরুষ্কার দেয়া উচিৎ ছিলো-লন্ডন স্কুল অব ইকোনোমিক্সে সাইদা মুনা তাসনীম

| ০০:০০, জুন ১৪, ২০১৯

সৈয়দ শাহ সেলিম আহমেদ । লন্ডন টাইমস।বাংলাদেশে নারীর ক্ষমতায়ন এবং নারী উন্নয়ন ও নারী আন্দোলনের আদ্যোপান্ত ইতিহাস, ঐতিহ্য, বিবর্তন তুলে ধরেন লন্ডনে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাই কমিশনার সাইদা মুনা তাসনীম। তিনি বলেন, বিশ্ব নারী আন্দোলনের প্রেক্ষাপট প্রেক্ষিত যাই ছিলোনা কেন, সেই আদিকাল থেকেই তখনকার বেঙ্গল এর শিক্ষিত সচেতন নারীদের দ্বারা সমাজ পরিবর্তনের অগ্রযাত্রায় বিশাল ভুমিকা রেখে গিয়েছিলেন, যদিও আমাদের বেঙ্গলে ইসলামের প্রভাবও ছিলো তাতপর্যপূর্ণ এবং তা অব্যাহতও আছে। নারীদের অধিকার, ক্ষমতা, সমতা এবং পারিবারিক  সামাজিক এবং আইনগত অধিকারের ব্যাপক সংস্কার ইসলামের আবির্ভাবের মাধ্যমে সাধিত হয়েছে। নারীসমাজের অগ্রযাত্রায় নারী শিক্ষা এবং উন্নয়নে তখনকার মহীয়সী বেগম রোকেয়া সাখাওয়াত এবং ততপরবর্তী সময়ে ৬৯ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষিত সচেতন তরুণ নারী  ছাত্রীরা ছিলেন প্রগতি, উন্নতির বাহক। ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের বঙ্গবন্ধুর ভাষণে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের ঐতিহাসিক প্যান্ডেলের অগ্রভাগে নারীদের বিশাল সারিবদ্ধভাবে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ শুনার জন্য অংশ নেয়া প্রমাণ করে সেদিনকার বাংলার নারীদের অগ্রবর্তী চিন্তা চেতনার অংশই নারী উন্নয়ন ও নারীর ক্ষমতায়ন ত্বরান্বিত করার জন্য ভুমিকা পালন করেছিলেন।

গতকাল লন্ডনের স্কুল অব ইকোনোমিক্সের নিউ একাডেমি ভবনের থিয়েটার হলে আয়োজিত মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ট বাংলাদেশে নারীর ক্ষমতায়ন শীর্ষক সেমিনারে মূল বক্তব্য উপস্থাপনায় সাইদা মুনা তাসনীম এসব কথা বলেন।

শেখ হাসিনাকে নোবেল শান্তি পুরুষ্কার দেয়া উচিৎ ছিলো-লন্ডন স্কুল অব ইকোনোমিক্সে সাইদা মুনা তাসনীম- লন্ডন স্কুল অব ইকোনোমিক্সে মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ট দেশ বাংলাদেশ নারীর ক্ষমতায়ন শীর্ষক সেমিনার

Posted by London Times-Salim Ahmed on Thursday, 13 June 2019

পাওয়ার পয়েন্টে উপস্থাপিত তথ্য উপাত্ত তুলে ধরে সাইদা মুনা তাসনীম তার বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারের গৃহীত নারী সমাজের সর্বস্তরের ক্ষমতায়ন ও উন্নয়নের ফিরিস্তি তুলে ধরে বলেন, উন্নত বিশ্বের ন্যায় বাংলাদেশের অর্থনীতি না হওয়া সত্যেও শুধু মাত্র মানবিক কারণে রোহিঙ্গাদের যে বিশাল জনগোষ্ঠীকে আশ্রয় দিয়ে বিরাট সাহসের ও মানবাধিকার সমুন্নতের যুগান্তকারি পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন, নোবেল শান্তি কমিটির উচিৎ ছিলো সে সময়েই শেখ হাসিনাকে নোবেল শান্তি পুরুষ্কার দেয়া। কিন্তু নোবেল শান্তি কমিটি কর্তৃক তা নে দেয়া ছিলো বরং দুঃখ জনক।

(ডিপ্লোম্যাট পিটার ফাওলার, আওয়ামীলীগ নেতা সারব আলী-এলসি সেমিনারেঃছবি শাহীন খান)

এর আগে লন্ডন স্কুল অব ইকোনোমিক্সের সাইন্টিফিক এডভাইজরি বোর্ড মেম্বার প্রফেসর লুতফে সিদ্দিকী সেমিনার আয়োজনের প্রেক্ষিত বলতে গিয়ে ডোনাল্ড ট্রাম্প, সৌদি বাদশা সাথে একমাত্র নারী প্রাইম মিনিস্টার শেখ হাসিনার ছবি সম্বলিত স্লাইডে প্রদর্শন করে বলেন, আমি জানিনা, আমার সাবজেক্টও নয়, তারপরেও মনে হলো, বাংলাদেশে কিছু হচ্ছে, এগিয়ে যাচ্ছে  বাংলাদেশ।

সেমিনারে লন্ডন স্কুল অব ইকোনোমিক্সের পলিটিক্যাল সাইন্সে অধ্যয়নরত ছাত্র ছাত্রী ছাড়াও বাংলাদেশে নিযূক্ত সাবেক ব্রিটিশ হাইকমিশনার ডিপ্লোম্যাট  পিটার ফাওলার, যুক্তরাজ্য আওয়ামীলীগের সভাপতি সুলতান শরীফ, মানবাধিকার সম্পাদক সারব আলী, যুবলীগ নেতা জামাল আহমেদ খান, এলবি টুয়েন্টিফোরের শাহীন খান, চ্যানেল এসের রেজাউল মৃধা এবং বাংলাদেশ হাই কমিশন লন্ডনের উর্ধতন কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

(সুলতান শরীফ, প্রেসিডেন্ট, যুক্তরাজ্য আওয়ামীলীগ, ছবি-সৈয়দ শাহ সেলিম আহমেদ)

সাইদা মুনা তাসনীমের বক্তব্যের পর ১০ মিনিট ছিল প্রশ্নোত্তর পর্ব। এসময় অডিয়েন্স থেকে বেশ কিছু প্রশ্ন উত্থাপিত হলে মুনা তাসনীম সেগুলোরও জবাব দেন।

(মানবাধিকার সম্পাদক সারব আলী, যুবনেতা জামাল আহমেদ খান, ছবি সেলিম)

সেমিনার শেষে সাবেক ব্রিটিশ হাই কমিশনার ডিপ্লোম্যাট পিটার ফাওলারকে বাংলাদেশের নারীর ক্ষমতায়ন নিয়ে বক্তব্য জানতে চাইলে তিনিও জানান, হাইকমিশনার মুনা তাসনীমের বক্তব্যের সাথে একমত পোষণ করে বলেন, এখনকার বাংলাদেশ নারীর ক্ষমতায়নে অনেক অগ্রগতি সাধিত হয়েছে এবং তা আরো অব্যাহত থাকবে বলে তার বিশ্বাস।

(শাহীন খান ও প্রফেসর লুতফে সিদ্দিকী, ছবি-সেলিম)

Comments are closed.

পাঠক

Flag Counter

UserOnline

Developed By : ICT SYLHET

Developer : Ashraful Islam

Developer Email : programmerashraful@gmail.com

Developer Phone : +8801737963893

Developer Skype : ashraful.islam625

error: Content is protected !!