রোহিঙ্গাদের এবার আরাম কমানো হবে :পররাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশিত: 2:41 PM, August 22, 2019 | আপডেট: 2:41:PM, August 22, 2019

লন্ডন টাইমস নিউজ:-

দুই বছর আগে নিপীড়নের মুখে পালিয়ে কক্সবাজারে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের কেউ মিয়ানমারে ফিরে যেতে রাজি না হওয়াকে ‘দুঃখজনক’ বলেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন।

তিনি বলেছেন, প্রত্যাবাসনের জন্য কাউকে না পাওয়াটা দুঃখজনক। তবে প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া বন্ধ হয়ে যায়নি, আগামীতেও চলবে। রোহিঙ্গাদের আরামের জীবন থেকে আরাম কমানো হবে, যাতে তারা ফিরতে রাজি হয়। যারা প্রত্যাবাসন ঠেকাতে প্রচার চালিয়েছে, তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বৃহস্পতিবার দুপুর আড়াইটার দিকে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, আমরা আশা করেছিলাম আজ থেকে প্রত্যাবাসন শুরু হবে। তবে তা শুরু হয়নি। কিন্তু আমরা আশা ছাড়িনি। আজকের বিষয়টি দুঃখজনক। আমরা এখনও প্রত্যাবাসন ইস্যুতে আশায় বুক বেঁধে আছি। পরবর্তী সময়ে কী করব, আমরা বসে সিদ্ধান্ত নিয়ে জানাব।

ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, রোহিঙ্গা শিবিরগুলোতে অনেক বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা প্রচারণা চালাচ্ছে, যাতে তারা মিয়ানমারে ফিরে না যায়। তাদের চিহ্নিত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, আমরা রোহিঙ্গাদের জোর করে মিয়ানমারে কাউকে পাঠাব না। আমরা স্বেচ্ছায় নিরাপদ প্রত্যাবাসন চাই। রোহিঙ্গা সংকটের মূলে আস্থার অভাব রয়েছে। এজন্য আমরা ওয়ার্কিং গ্রুপের বৈঠকে প্রস্তাব করেছিলাম, আস্থা তৈরির জন্য কক্সবাজারের একাধিক শিবিরে যেসব রোহিঙ্গা মাঝি বা নেতা রয়েছেন তাদের রাখাইন নিয়ে ঘুরিয়ে দেখানো হোক, যেন রোহিঙ্গাদের মধ্যে আস্থার যে অভাব আছে তা দূর হয়।