ব্রেক্সিট নেগোসিয়েশন এবার আমেরিকায়ঃজনসনের ব্লুপ্রিন্ট নিয়ে ব্রিটেন ও ইউকে নেগোসিয়েশন হবে যুক্তরাষ্ট্রে

প্রকাশিত: ১১:০৯ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৭, ২০১৯ | আপডেট: ৮:১৮:পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৯

লন্ডন রিপোর্টার্স ইউনিটি । কনজারভেটিভ হেড কোয়ার্টার্স। লন্ডন, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯। ব্রেক্সিট নিয়ে অনেক নাটকীয়তা, অনেক উত্তাপ, নানা আলোচনা, বিতর্কের পর যখন সুপ্রিম কোর্টে প্রাইম মিনিস্টার জনসনের পার্লামেন্ট স্থগিত নিয়ে শুনানী চলছে, ঠিক সেই মুহুর্তে ক্ষমতাসীন কনজারভেটিভ দলের নেতা বরিস জনসনের উচ্চ পর্যায়ের পলিসি টিম জানিয়েছে, প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন জাতিসংঘের অধিবেশনে যোগ দিতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র যাচ্ছেন এ মাসেই। সেখানে অধিবেশনে ইউরোপিয় ইউনিয়নও যাচ্ছে। যোগ দিবে ফ্রান্স, নেদারল্যান্ডস, জার্মানি, বেলজিয়াম সহ ইউরোপের অধিকাংশ দেশের লিডাররা।

প্রাইম মিনিস্টার জনসন গতকাল ইইউ লিডার জিন ক্লড ঝংকারের সাথে একান্তে আলোচনা করেছেন। দুই নেতাই আলোচনা গঠণমূলক বলে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেছেন, যদিও কনক্রিট চুক্তির সমঝোতা নিয়ে কোন ক্লু দুই নেতা দেননি।

ডাউনিং ষ্ট্রীট এবং ইউরোপিয় কমিশনের একটি উচ্চ পর্যায়ের বিশ্বস্থ সূত্র জানিয়েছে, প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের হাতে নর্দার্ণ আয়ারল্যান্ডের ব্যাক স্টপ নিয়ে স্পেসিফিক বিকল্প প্রস্তাব রয়েছে। কিন্তু গতকালের আলোচনার সময়ে জনসন তার সেই প্রস্তাব তখনও উত্থাপন করেননি। লুক্সেমবার্গের প্রাইম মিনিস্টার জাভিয়ার বিটল অন্য ইইউ নেতার পরামর্শে ব্রেক্সিট নেগোসিয়েশনের আলোচনা এক ধরনের  প্রকাশ্যে হাইজ্যাকিং এর নোংরা রাজনীতি করায় জনসনের ব্লুপ্রিন্ট লিক আউটের আশংকায় বরিস জনসন সেটা গতকাল উত্থাপন করেননি-জাভিয়ার বিটলের অপেশাদারি ও অকূটনৈতিকশুলভ আচরণ সেটারই জনসনের আশংকা প্রমাণ করেছে।

Boris Johnson (pictured in Luxembourg yesterday) has started to share details of his Brexit blueprint with the EU as talks on a possible deal intensify, according to Government sources

সূত্র জানিয়েছেন, জনসনের প্রস্তাবিত ব্যাকস্টপ নিয়ে প্রস্তাবনা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে জাতি সংঘের অধিবেশন চলাকালীন সময়ে শুধু মাত্র শীর্ষ দুই নেতা এবং মার্কেলের সাথেই আলোচনা হবে। অন্যান্য নেতাদের সাথেও আলোচনা হবে সেখানেই। তবে বরিস জনসনের প্রস্তাব যাতে লিক আউট হয়ে আলোচনা ভেস্তে না যায়, সেজন্য অত্যন্ত গোপণীয়তার সাথে শীর্ষ নেগোসিয়েটবৃন্দ ঐক্যমত্যে পৌছতে চান।

ব্যাকস্টপ নিয়ে জনসনের বিকল্প প্রস্তাব নিয়ে ডাউনিং ষ্ট্রীট আশাবাদী-ব্রেক্সিট ডেডলক খুলে যাবে। ঝংকার ও মার্কেল মনে করেন নির্ধারিত সময়েই ব্রেক্সিট আলোচনার মাধ্যমে কার্যকরের উপায় রয়েছে।

ডাউনিং ষ্ট্রীট জানিয়েছে, ব্রেক্সিটের হাই টেকনিক্যাল বিষয়গুলো নিয়ে কমিশনের সাথে ফ্রস্ট আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছেন।

ডাউনিং ষ্ট্রীট এবং কমিশন সূত্রে জানা গেছে, ইউকে ও কমিশনের নেগোসিয়েশনের উচ্চ পর্যায়ের মিটিং এ লিগ্যাল বিষয় সহ ডকুম্যান্টস যা টেরেজা মে প্রোপোজাল ইউকে এবং ইইউ সম্মত হয়েছিলো, জনসন যেগুলো নিয়ে আপত্তি তুলেছিলেন এবং বিকল্প আইনী ও টেকনিক্যাল ইস্যু প্রস্তাব বিয়োজন-সংযোজনের জন্য ডকুম্যান্টস হস্তান্তর করেছেন, উভয়ই লিক হওয়া থেকে রক্ষার জন্য সেগুলো প্রস্তাবিত সমঝোতা চুক্তি থেকে সরিয়ে রেখেছেন- যাতে কোনভাবেই লিক না হয়।

সেই নতুন ডকুম্যান্টসগুলো, প্যারা, আইনি ও টেকনিক্যাল কন্টেন্স আগামী ২রা অক্টোবরের আগে কমিশন প্রকাশ করবেনা। ২রা অক্টোবরের সামিটের পরে প্রেস কনফারেন্সই প্রকাশ করা হবে।

অল আয়ারল্যান্ডস এগ্রিকালচারাল জোন নামের জনসনের সেই ব্লু প্রিন্ট ২রা অক্টোবর এর আগে ইউকেও প্রকাশ করবেনা।

শীর্ষ নেতৃত্বের একটি সূত্র দাবি করেছে, ইউকে ও ইইউ অনেকটাই ব্রেক্সিট চুক্তির কাছাকাছি, এভাবে টেকনিক্যাল ইস্যুগুলো সলভ হতে থাকলে ৩১ অক্টোবর ২০১৯ ব্রেক্সিট চুক্তি কার্যকর হবে।