প্রবাসীদের হাতে প্রাউড টু প্রটেক্ট বাংলাদেশ সিল দেয়া হচ্ছে

প্রকাশিত: ৭:০৬ অপরাহ্ণ, মার্চ ২০, ২০২০ | আপডেট: ৭:০৬:অপরাহ্ণ, মার্চ ২০, ২০২০

লন্ডন টাইমস, ঢাকা, সিলেট, চট্রগ্রাম ।করোনাভাইরাস ঠেকাতে বিদেশফেরত সব যাত্রীর হাতে সিল মারা হচ্ছে। আজ শুক্রবার থেকে ঢাকার হজরত শাহজালাল, সিলেটের এম এ জি ওসমানী ও চট্টগ্রামের শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর এবং দেশের স্থলবন্দরগুলোয় ইমিগ্রেশন পুলিশের পক্ষ থেকে এই সিল মারার কাজ করা হচ্ছে।

এই সিলে বিদেশফেরত যাত্রীকে কত দিন হোম কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে, সেই তারিখ উল্লেখ রয়েছে। সিলের প্রথম অংশে ইংরেজিতে লেখা রয়েছে ‌‘প্রাউড টু প্রোটেক্ট বাংলাদেশ’। এরপর ‘হোম কোয়ারেন্টিন আনটিল’ লিখে কোয়ারেন্টিনে থাকার সব শেষ তারিখ উল্লেখ করা রয়েছে।

ইমিগ্রেশন পুলিশের ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা বলেন, ১৬ মার্চ মন্ত্রিপরিষদের সবশেষ বৈঠকে বিদেশফেরত সব যাত্রীর বাধ্যতামূলক ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এরপর গতকাল বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ পুলিশের মহাপরিদর্শক জাবেদ পাটোয়ারির সভাপতিত্বে এক বৈঠকে সিল মারার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এই সিদ্ধান্তের পর শুক্রবার থেকে এটি কার্যকর হয়েছে। কারণ, সিল মারা হলে কেউ হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার সিদ্ধান্ত অমান্য করতে পারবেন না।

তা ছাড়া করোনাভাইরাস প্রতিরোধে এ ধরনের সিল দেওয়ার কাজ বহু দেশেই করা হচ্ছে। এই সিলের কালি অমোচনীয়। এই সিল থাকলে কেউ বাড়ি ফিরে গেলেও সহজে বাইরে বের হতে পারবেন না। আর বাইরে গেলেও তাঁকে সহজে শনাক্ত করা যাবে। বাংলাদেশে প্রবেশের যত পথ রয়েছে সব জায়গায় ইমিগ্রেশন পুলিশের পক্ষ থেকে সিলটি বসিয়ে দেওয়া হচ্ছে।