হারামাইন শরীফ হাইজিনে ৪৫০ ওয়ার্কার দিন রাত কাজ করছেন

সৌদি আরবে ২১দিন সাধ্য আইন

প্রকাশিত: ১১:৩৯ অপরাহ্ণ, মার্চ ২৩, ২০২০ | আপডেট: ১১:৩৯:অপরাহ্ণ, মার্চ ২৩, ২০২০

সৌদি আরব, লন্ডন টাইমস। করোনা ভাইরাস নিয়ন্ত্রণে মক্কা মদীনার দুই পবিত্র মসজিদুল হারামাইন শরীফ জীবাণুমুক্ত করার জন্য ৩৩০ জন ওয়ার্কার থেকে বৃদ্ধি করে ৪৫০জন করে ওয়ার্কার দিন রাত কাজ করছেন। মসজিদের পুরনো রাগ, কার্পেট সব বের করে দেয়া হয়েছে। মসজিদ প্রাঙ্গন, পবিত্র স্থান সমূহ, কাবা চত্বর সব পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন নতুনভাবে করা হচ্ছে।

এদিকে, করোনা ভাইরাস নিয়ন্ত্রণে পুরো সৌদি আরবে কারফিউ জারি করেছেন বাদশাহ সালমান। গতকাল সোমবার সন্ধ্যা ৭টা থেকে এই কারফিউ শুরু হবে। ২১ দিন পর্যন্ত প্রতিদিন সকাল ৬টা নাগাদ এই কারফিউ বলবৎ থাকবে। রয়েল কোর্টের বিবৃতি উদ্ধৃত করে সরকারি বার্তা সংস্থা সৌদি প্রেস এজেন্সি (এসপিএ) এ খবর প্রকাশ করেছে। রোববার সৌদি আরবের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ঘোষণা করে সেখানে নতুন করে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ১১৯ জন। সব মিলে সৌদি আরবে আক্রান্তের সংখ্যা এখন ৫১১। এরপরই বাদশাহ সালমান ওই নির্দেশ জারি করেন। ওই নির্দেশে নাগরিক ও বসবাসকারীদের নিজেদের নিরাপত্তার জন্য কারফিউ চলাকালীন বাড়িতে অবস্থান করতে বলা হয়েছে।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে কারফিউ প্রয়োগের প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা গ্রহণ করবে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এতে তাদেরকে পূর্ণাঙ্গ সহযোগিতা করবে সব বেসামরিক ও সামরিক কর্তৃপক্ষ।

এর পরপরই আরেকটি বিবৃতি প্রকাশ করেছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। তাতে কারফিউ চলাকালে কোন কোন খাত এর আওতামুক্ত থাকবে তা বলা হয়েছে। খাদ্য সেক্টর, যেমন ক্যাটারিং, সুপারমার্কেট, পোলট্রি, সবজি মাংস, বেকারি, খাদ্য তৈরির কারখানা ও ল্যাবরেটরিজ কারফিউয়ের আওতামুক্ত থাকবে। একই নীতি থাকবে স্বাস্থ্যখাত, ক্লিনিক, হাসপাতাল, ল্যাবরেটরিজ, কারখানা, মেডিকেল সরঞ্জাম ও ডিভাইসের ক্ষেত্রে। মুক্ত থাকবে মিডিয়া।